প্রানিসেবা শপ | প্রানিসেবা ভেট | যোগাযোগ | আপনার জিজ্ঞাসা | ব্লগ     01847469945        BN | EN

করোনা প্রতিরোধে মাছ, মাংস, দুধ ও ডিমের ভূমিকাঃ

বর্তমান সময়ে সারা বিশ্বে করোনাভাইরাস বা Covid-19 মহামারী আকার ধারণ করেছে যা সকলের জন্য একটি আতঙ্কের নাম।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শ মতে, করোনা সংকটকালীন এই সময়ে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে পুষ্টিকর খাবার গ্রহণ করা প্রয়োজন। এই পুষ্টিকর খাবার এর প্রধান উপাদান হচ্ছে মাছ, মাংস, দুধ ও ডিম।

কিন্তু আমাদের দেশে বর্তমানে একটি গুজব ছড়িয়েছে যে মাছ, মাংস ও দুধের মাধ্যমে করোনা ছড়ায় যা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। এ সময় মাছ ও মাংসের মাধ্যমে করোনা ছড়ানোর গুজবে বিভ্রান্ত না হয়ে করোনা মোকাবেলায় নিয়মিত দুধ, ডিম, মাছ ও মাংস খাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণীসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, এমপি। নিচের বিষয়গুলো আলোচ্য:

১) মানব দেহের জন্য দুধ অত্যন্ত প্রয়োজনীয় খাদ্য। মানুষ সারা জীবন শুধু দুধ খেয়ে বেঁচে থাকতে পারে। গাভীর দুধ আমাদের দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। তাই যদি সম্ভব হয় করোনা ভাইরাসের এই মহামারী থেকে নিজেকে সুস্থ রাখতে প্রতিদিন কমপক্ষে এক গ্লাস দুধ পান করুন।

২) উচ্চরক্তচাপ, ডায়েবেটিস, ওজন নিয়ন্ত্রণ ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে প্রতিদিন কমপক্ষে একটি করে ডিম খান। ডিমে প্রচুর পরিমান ভিটামিন ডি রয়েছে, যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

৩) বিভিন্ন মিডিয়াতে হাঁস, মুরগি ও বিভিন্ন পোষা প্রাণী থেকে করোনা ছড়াতে পারে বলে প্রচার চালানো হচ্ছে। অথচ সারা দুনিয়ায় কোথাও হাঁস, মুরগি বিশেষ করে ব্রয়লার থেকে করোনা ছড়িয়েছে এমন কোন রেকর্ড নেই। অন্যদিকে, Covid-19 এর কোন প্রতিষেধক এখনো প্রস্তুত হয়নি, এর মোকাবেলায় আমাদের আভ্যন্তরীণ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাই সম্বল। তাই স্বল্পমূল্যে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে মাংসের বিকল্প নেই।

৪) এছাড়া দেশি, সোনালি অথবা ব্রয়লার মুরগি, হাঁস, কবুতর, কোয়েল, টার্কি, তিতির, গরু, মহিষ, ছাগল ও ভেড়া ইত্যাদি গৃহপালিত পাখি ও প্রাণী থেকে আমরা প্রাণিজ প্রোটিন এর উৎস হিসেবে মাংস, ডিম ও দুধ পাই। যা শরীরে অনেক রোগ প্রতিরোধ বৃদ্ধিকারক ভিটামিন ও মিনারেলের যোগান দেয়। তাই নিয়মিত এই ধরনের খাবার গ্রহন করলে ভাইরাস ব্যাকটেরিয়াসহ যে কোন ধরনের সংক্রমণ প্রতিরোধ ও দৈহিক ক্ষয়পূরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।